সময়ের ব্যাবহার


একবার এক শিক্ষক একটি জলভর্তি পাত্রে একটি ব্যাঙ ছেড়ে দিলেন এবং তার ছাত্রদের বললেন পাত্রটি আগুনে গরম করতে ।কিছুক্ষন পর পাত্রের জল গরম হতে লাগলো।সবাই দেখলো ব্যাঙটি বিশেষ কিছু করলো না শুধু যেখানে ছিলো সেখান থেকে একটু দূরে সরে গেলো।

এরপর শিক্ষক বললেন আগুনের আঁচ আরো বাড়িয়ে দিতে যাতে পাত্রের জল আরো তাড়াতাড়ি গরম হয়।ছাত্ররা তাই করলো এর ফলে জল ধীরে ধীরে আরও গরম হতে লাগলো। ছাত্ররা দেখলো ব্যাঙটি ও তার অবস্থান পরিবর্তন করে গরম জলের সাথে নিজেকে মানিয়ে নিতে চাইলো।

কিছুক্ষণ পর জল এত বেশি গরম হয়ে গেলো যে বাঙটির আর ওই জলে থাকা সম্ভব হলো না। এরপর ব্যাঙটি বাধ্য হয়ে বাইরে বেরোনোর জন্য লাফাতে শুরু করলো।কিন্তু পাত্রটি যেহেতু খুব বড় ছিল তাই ব্যাঙটি লাফিয়ে বাইরে আসতে অসমর্থ হলো এবং অবশেষে ব্যাঙটি মারা গেলো।

এবার শিক্ষক সবাইকে জিজ্ঞাসা করলেন এই ব্যাঙটিকে কে মারলো!তখন সবাই উত্তর দিলো গরম জল ব্যাঙটিকে মেরেছে।

তখন শিক্ষক বললেন না , ব্যাঙটি তার নিজের কারণেই মারা গেছে।প্রথমে জল যখন কম গরম ছিলো তখন ব্যাঙটির কাছে যথেষ্ট শক্তি ছিলো বাইরে বেরিয়ে আসার কিন্তু সে এটা না করে নিজেকে ওই জলের মধ্যে মানিয়ে নেওয়ার জন্য অনেক শক্তি খরচ করে ফেলেছে।ফলে শেষে যখন সব সহ্যের বাইরে চলে গেলো তখন ব্যাঙটি চেষ্টা করলেও তার কাছে আর পর্যাপ্ত শক্তি ছিলো না।
কিন্তু ব্যাঙটি যদি প্রথম থেকেই বাইরে বেরিয়ে আসার চেষ্টা করতো তাহলে সে সহজেই বাইরে বেরিয়ে আসতে পারতো।

আমাদের জীবনেও আমরা ওই একই ভুল করি।যখন আমরা কোনো খারাপ পরিস্থিতির মধ্য পরি ,প্রথমে আমরা ওই পরিস্থিতির সাথে নিজেকে মানিয়ে নেবার চেষ্টা করি।কিন্তু এতে আমাদের অনেক শক্তি, অনেক বিশ্বাস অবাক ধৈর্য নষ্ট হয়ে যায়।ফলে পরে পরিস্থিতি যখন আমাদের সহ্য সীমার বাইরে চলে যায় তখন আমরা হাজার চেষ্টা করলেও ওই পরিস্থিতি থেকে নিজেকে বের করে আনতে পারি না।কিন্তু যদি আমরা প্রথমেই ওই পরিস্থিতি থেকে নিজেকে বাইরে বের করে আনার চেষ্টা করতাম তো আমরা অবশ্যই সফল হতাম।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Recent Content

link to পুজোয় রাজ্যে জুড়ে প্রবল বৃষ্টির সম্ভবনা - ভাসবে কলকাতা । Rain in Durgapujo

পুজোয় রাজ্যে জুড়ে প্রবল বৃষ্টির সম্ভবনা - ভাসবে কলকাতা । Rain in Durgapujo

পুজোয় সারা রাজ্যে প্রবল বৃষ্টির সম্ভবনা। এমনই খবর জানালো আবহাওয়া দপ্তর।...